স্টাফ রিপোর্টার : করোনা পরিস্থিতির কারণে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে কাল বুধবার বসছে সংসদের অধিবেশন। সংক্রমণে ঝুঁকি এড়াতে এবার সীমিত পরিসরে চলবে অধিবেশনের কার্যক্রম। সংসদ সচিবালয় থেকে এসএমএসের মাধ্যমে যাদের ডাকা হবে, শুধু তারাই অধিবেশনে যোগ দেবেন। বাজেট পেশের দিন কোনো অতিথি এবং সাংবাদিকদেরও এবার আমন্ত্রণ জানানো হবে না। সংক্ষিপ্ত এ বাজেট অধিবেশন শুরুর পরদিন বৃহস্পতিবার সংসদের দ্বিতীয় বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার বিকেলে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হবে অধিবেশন। সাধারনত অধিবেশন শুরুর আগে সংসদ ভবনে কার্য-উপদেষ্টা কমিটির বৈঠক বসার রেওয়াজ থাকলেও এবারের বিশেষ পরিস্থিতিতে তা আর বসছে না।

সংসদের চীফ হুইপ নুর-এ আলম চৌধুরী জানান, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে সংসদ সদস্যের আসন বিন্যাসে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আর অসুস্থ ও বয়স্ক এমপিদের অধিবেশনে না আসার জন্য অনুরোধও জানানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর মাত্র পাঁচ দিন আলোচনা হবে। আর পুরো বাজেট পাসের প্রক্রিয়া খরচ হবে ১০ দিন। সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২০ ঘণ্টা বাজেট আলোচনা হতে পারে।

গতবছর প্রায় ৬০ ঘণ্টা আলোচনা হয়েছিল। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত এই আলোচনা চলবে। আগামী ২৯ জুন অর্থবিল ও ৩০ জুন মূল বাজেট পাস হবে। মাত্র ১২ কার্যদিবসে এ অধিবেশন শেষ হতে পারে আগামী ৯ জুলাই।