হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ;শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেছেন বঙ্গবন্ধুর শতবার্ষিকীতে এসেও আমরা তাকে সার্বজনীন করতে ব্যর্থ হয়েছি। এর দায় কোনভাবেই আওয়ামী লীগ এড়াতে পারে না। বঙ্গবন্ধু ছিলেন মহান স্বাধীনতার স্থপতি। তিনি জীবনে মৃত্যুর আগদিন পর্যন্তও দেশ ও জনতার জন্য বারবার কারাবরণ করেছেন। মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য তার ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ জাতির জন্য প্রেরণার উৎস। তিনি বাংলাদেশসহ পৃথিবীর অনেক দেশের জন্য একজন স্বাধীনতাকামী মানুষ হিসেবে প্রেরণার উৎস ছিলেন। সেই মহান নেতাকে আমরা বাক্সবন্দী করে ফেলেছি। খবর বাপসনিউজ।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ৩২নং এ তাঁর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে গণমাধ্যমে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, সময় এসেছে সংকীর্ণতার রাজনীতি থেকে সবাইকে বের হয়ে আসার। আমরা যদি শেরে বাংলা, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও মওলানা ভাসানীকে যথাযথ রাষ্ট্রীয় মর্যাদা দিতে সমর্থ হই তাহলে বঙ্গবন্ধু সকলের কাছে আরো বেশী নন্দিত ও গ্রহণযোগ্যতা পাবেন। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রাজনীতি না করে তার আদর্শ ও দেশপ্রেম তরুণ প্রজন্মের কাছে ছড়িয়ে দিলে দেশে দুর্নীতি ও দুঃশাসনমুক্ত হবে।

৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী এমন একটি সময় পালিত হচ্ছে যেসময় একদিকে করোনা অন্যদিকে বানভাসি মানুষের আত্মচিৎকার ও আর্তনাদ। তাদের পাশে বিত্তশালীসহ সকল রাজনীতিবিদদের দাঁড়ানো নৈতিক দায়িত্ব। আসুন আমরা অষহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেদেরকে মানুষ হিসেবে গড়ে তুলি।

এসময় অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের মহাসচিব আর কে রিপন, নির্বাহী সদস্য সালাহউদ্দিন, স্বপ্নপুরী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এ জে আলমগীরসহ প্রমুখ।