শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা মামলা পরিচালনায় ওআইসি সদস্য রাষ্ট্রের সহায়তা চাইলেন সৌদি নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতওআইসিরস স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) হাতিয়ায় ৫ হাজার তালবীজ বপন করেছে উপক’ল ফাউন্ডেশন কমলগঞ্জ শারদীয় দূর্গাপূজায় ৩দিনের সরকারি ছুটির দাবিতে মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগ পরিবার পালন করলো প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন করলো নিউইয়র্ক মহানগর যুবলীগ সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা মহানগর আ’লীগের উদ্দোগে নবজাগরণের অগ্রদূত প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী পালন হাতিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দিন ব্যাপি কর্মসূচী পালিত শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্যই বঙ্গবন্ধু হত্যা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে-মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী আলামিয়া- নুরুল ইসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর আয়োজনে পবিত্র কছিদা বুরদা শরীফ খতমে খাজেগান, খতমে শেফা শরীফও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা যাবে না : হানিফ
আম্পান দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত

আম্পান দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত

আম্পান দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত

স্টাফ রিপোর্টার : ঘূর্ণিঝড় আম্পান মধ্যরাতে সাতক্ষীরা-ঝিনাইদহ হয়ে উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে বৃষ্টি ঝরিয়ে স্থল নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তবে ঘূর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে যাওয়ায় মোংলা, পায়রা, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজার উপকূলীয় এলাকায় সংকেত পরিবর্তন করে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। এটি এখন রাজশাহী ও পাবনা অঞ্চলে অবস্থান করছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রাজধানীসহ সারাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে। রাজধানীতে ভোর ৬ টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টি হয়েছে ৭৬ মিলিমিটার। আর এ সময়ে দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ঈশ্বরদীতে ১৭০ মিলিমিটার।

আম্পান অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৫১ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানে সাতক্ষীরায়। এটি ছিল বাংলাদেশে আম্পানের সর্বোচ্চ গতি বলেও জানায় আবহাওয়া অফিস। আম্পানের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চল। ইতোমধ্যে শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। উপকূলীয় এলাকার বাঁধগুলোর অর্ধশত পয়েন্ট ভেঙে গেছে। জনপদে প্রবল বেগে পানি প্রবেশ করছে। বিধ্বস্ত হয়েছে কাঁচা ঘরবাড়ি, উপড়ে পড়েছে গাছপালা।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, বৈরি আবহাওয়ার কারণে মাঝারি বৃষ্টিপাত আগামীকাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এছাড়া আবহাওয়া অফিসের মধ্যরাতের বুলেটিনে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী ও চট্টগ্রামের জেলাসমূহে ভারি বৃষ্টিসহ ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

আম্পান একই অঞ্চলে কিছু সময়ের বিরতিতে দুইবার আঘাত হানে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। একটা ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাসার্ধ থাকে ৩০০ থেকে ৪০০ কিলোমিটার। আর ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্র থাকে ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার। ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রে বাতাস থাকে কম আকাশ থাকে পরিষ্কার। ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাসার্ধের সম্মুখ অংশ প্রথমে আঘাত হানে। তারপর যখন কেন্দ্রের অংশে যায়, তখন বাতাস কমে যায়। কেন্দ্র অংশ অতিক্রম করার পর ঘূর্ণিঝড়ের পেছনের অংশ আবার আঘাত করে প্রবল গতিতে। গত সারারাতে বাংলাদেশে এভাবে আঘাত করেছে ঘূর্ণিঝড়টি।
আম্পান প্রথম ও শেষ আঘাতে বাতাস বেশি ছিল, মাঝখানে বাতাস কম ছিল।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বসত্ব ® দেশের সময়.কম কর্তৃক সংরক্ষিত।