বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্যারেডবিহীন করোনাকালের হ্যালোইন উৎসব ;  তানিজা খানম জেরিন মনে পড়ে ফুলনদেবীর কথা ? “ রুখে দাও ধর্ষণ “ নিউইয়র্ক গভর্নরের সর্বোচ্চ সম্মান পেল বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সুবর্ণ “কবি সফিক আলম মেহেদী ও সঙ্গীত শিল্পীর শিরিন আক্তার চন্দনার বিয়ে” সকল গৌরবময় ইতিহাসের স্বাক্ষী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অন্য সবকিছুর মতো মার্কেটিংও অতিক্রম করছে সংকট সন্ধিক্ষণ লালমনিরহাটে ছাত্রী ধর্ষণের দায়ে মামলা লালমনিরহাটে মাটির নিচে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধ বিমানের ধ্বংসাবশেষের উদ্ধার বোনের বাড়িতে বেড়াতে এসে ১৫ দিন ধরে নিখোঁজ বুড়িচংয়ের মরিয়ম ধর্ষণ প্রতিরোধে মৃত্যুদণ্ড ; অ্যান্টিবায়োটিকটি শক্ত হলেও কাজ হবে কি?
সাংবাদিকদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে

সাংবাদিকদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে

সাংবাদিকদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে

সাংবাদিকের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। দেশের দূর্ণীতিবাজ, ঘুষখোর, টেন্ডারবাজ, ত্রাণচোর ও রাজনৈতিক সন্ত্রাসিরা সাংবাদিকদের প্রতিপক্ষ মনে করে একেরপর এক হামলা-মামলায় সাংবাদিকরা আজ চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ।

সারাদেশে অব্যাহত নির্যাতন, মামলা-হামলা, লাঞ্ছিতের ঘটনা ঘটেই চলছে। পুলিশি জুলুম হয়রাণীতে সাংবাদিকের প্রাণ ওষ্ঠাগত। পুলিশও সাংবাদিকদের প্রতিপক্ষ ভাবছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে জাতির জনকের সোনার বাংলা স্বপ্নই রয়ে যাবে।

রাষ্ট্রের চারটি স্তম্ভের একটি গণমাধ্যম আজ মামলা-হামলায় পঙ্গুত্ববরণ করতে চলছে। বাকি তিনটি যতই শক্তিশালী হোকনা কেন রাষ্ট্র কোন শক্তিতে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াবে তা বোধগম্য নয়। করোনার মহামারী শেষ হলে বাংলাদেশকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বলতে বলতে চায়- আপনি বিশ্ববরেন্য মানবতাবাদী স্বীকৃত। আপনি বিশ্বে সাহসি প্রধানমন্ত্রী। আপনি করোনায় দেশের সকল পেশার মানুষের পাশে জানপ্রাণ দিয়ে দাঁড়িয়েছেন। রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে সকল পেশাজীবীরা আপনার মাধ্যমে সুবিধা পেয়েছেন। ইদের আগে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ সকল পেশার মানুষ কমবেশি আর্থিক সুবিধা পেয়েছেন। যদি প্রশ্ন করা হয় কোন পেশার মানুষ সরকারের আর্থিক সুবিধা পায়নি? নি:সন্দেহে উত্তরটা মিলবে সাংবাদিক।

দেশে সাংবাদিকরাই আজ সুষম সুবিধাবঞ্চিত, অবহেলিত ও নিরাপত্তাহীন। যেমনটি নেই কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা, চলছে সাংবাদিক ছাটাই। যেন কচু পাতার পানি আর সাংবাদিকের চাকরী একইহাল। প্রয়োজন একটি নীতিমালা। দেশ গঠনের ৪৯টি বছরেও এটি সম্ভব হয়নি, আর কবেইবা হবে কেউ জানেনা।

সাংবাদিক নির্যাতনমুক্ত বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হলেই কেবল জাতিরজনকের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে। সরকারের হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবেনা। এজন্য প্রয়োজন সরকারের সদিচ্ছা। সাংবাদিকরা বেতন চায়না। তারা রাষ্ট্রের কাছে দায়বদ্ধ। তাইতো জীবন-সংসারের নিরাপত্তার কথা চিন্তা না করে প্রতিদিন তারা অন্যায়-অনিয়ম ও দূর্ণীতিবাজদের বিরুদ্ধে কলম যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক যখন হত্যা মামলার আসামি হয়। তখন আর সাংবাদিকের নিরাপত্তা কোথায়। ঘটনাস্থল বাউফল। পুলিশি পিটুনিতে অটোচালকের মৃত্যু। সংবাদ প্রকাশ করেন সাংবাদিকেরা। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলার ঘটনাস্থল নরসিংদী। করোনার মাঝেও বাস চলাচল করায় শ্রমিক নেতা বিচ্চুর বিরুদ্ধে ফেসবুকে ষ্ট্যাটাসে মামলা অত:পর কারাগার, ঘটনাস্থল গাইবান্ধার পলাশবাড়ী। সাংবাদিকের নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের স্বার্থে ওষুধের মূল্যহ্রাস ঘোষণায় আহসান হাবিব সোহাগকে জুতাপেটার হুমকি; ঘটনাস্থল ঝালকাঠির রাজাপুর। সাংবাদিকের বিরুদ্ধে সাংবাদিকের মামলা: ঘটনাস্থল কক্সবাজার ও হবিগঞ্জ। মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় মানবজমিন প্রতিনিধিসহ পরিবারের ৫জনের ওপর হামলা: ঘটনাস্থল সুনামগঞ্জের তাহিরপুর। সাংবাদিকের ওপর হামলার স্বাক্ষ্য দেয়ায় জামালপুরের সাংবাদিক শেলু আকন্দ আজ পঙ্গু। দেশে এরকম বহু শেলু আকন্দ আজ বিপর্যস্ত, পলাতক, কারাবন্দী।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী; আপনি দেশের সাংবাদিকের শেষ ভরসাস্থল বলে আমরা আপনাকেই বলছি…। আপনার আশপাশে ঘুরঘুর করা কিছু সাংবাদিকের কথায় বিশ্বাস না করে সাধারণ নিরপেক্ষ সাংবাদিক ও সংগঠনসমুহের নেতৃবৃন্দের মনোকষ্টের কথাগুলো শুনুন। ঢাকার বাইরের সাংবাদিকদের সুখেদুঃখে যারা কাজ করে তারা আপনাকে কী বলতে চান, আপনি তাদের ডাকুন, কথা শুনুন। মফস্বলের সাংবাদিকদের পিঠ আজ দেয়ালে ঠেকে গেছে।

তাই সময় এসেছে দেয়ালে পিঠ ঠেকানো সাংবাদিকদের ঘুরে দাঁড়ানোর। বিএমএসএফ’র সাথে থাকুন। বিএমএসএফ ঘোষিত ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়ন আজ সময়ের দাবিতে পরিনত হয়েছে। চাই অপ-সাংবাদিকতামুক্ত বাংলাদেশ। তাই প্রয়োজন সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন।

আসুন, আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ওইসকল সাংবাদিক নির্যাতনকারী অন্যায়-অনিয়ম, জুলুমবাজ, দূর্ণীতিগ্রস্থ সন্ত্রাসি, হায়েনার বিরুদ্ধে শপথ গড়ে তুলি। কোথাও কোন সাংবাদিকের বিপদে আমরা যে যার জায়গা থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ি। প্রতিবাদের ঝড় তুলি। দাবি তুলি সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে যুগোপযোগী আইন প্রণয়নের। বিএমএসএফ’র আন্দোলনে সাংবাদিকদের রুটিরুজি, নিরাপত্তা, মর্যাদা রক্ষায় আপনিও সহযোগী হোন।

আহমেদ আবু জাফর, প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম-বিএমএসএফ, ০১৭১২৩০৬৫০১/ ২৭ মে ২০২০ খ্রী:।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বসত্ব ® দেশের সময়.কম কর্তৃক সংরক্ষিত।