মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৫২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আলামিয়া- নুরুল ইসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর আয়োজনে পবিত্র কছিদা বুরদা শরীফ খতমে খাজেগান, খতমে শেফা শরীফও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা যাবে না : হানিফ ইচ্ছে পূরন রক্তদান সংস্থা’র উদ্যােগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস মানবিক শহর গড়তে প্রয়োজন হাঁটা ও সাইকেলবান্ধব পরিবেশ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অনুষ্টিত হল বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ২০২০ “ দে‌বিদ্বার উপ‌জেলা স্টুডেন্টস অ্যা‌সো‌সি‌য়েশন অব তিতুমীর ক‌লেজ (ডুসা‌ট)’র ক‌মি‌টি ঘোষনা মুজিবের বাংলাদেশে মাওলানা আহমদ শফী দ্বীনের জন্য আমৃত্যু কাজ করেছেনঃ এনডিপি অসহনীয় লোডশেডিংয়ে ডেমড়ায় ভ্যাপসা গরমে অতিষ্ঠ জনজিবন শাহ আহমেদ শফি’র শেষ বিদায় জানাতে হাটহাজারীতে মানুষের ঢল
করোনার টিকা এ বছরেই মিলতে পারে: ডাব্লিউএইচও

করোনার টিকা এ বছরেই মিলতে পারে: ডাব্লিউএইচও

করোনার টিকা এ বছরেই মিলতে পারে: ডাব্লিউএইচও

স্টাফ রিপোর্টার : করোনার টিকা এ বছরেই পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সৌম্য স্বামীনাথন জানিয়েছেন, পরীক্ষার চূড়ান্ত পর্যায়ে থাকা বেশ কয়েকটি টিকার আশাব্যঞ্জক ফল এসেছে। এদিকে জার্মান প্রতিষ্ঠান কিউরভ্যাক ও চীনা প্রতিষ্ঠান ক্লোভারের টিকা মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে।
করোনার ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের দৌড়ে এগিয়ে আছে অক্সফোর্ড। মানবদেহে পরীক্ষার পর্যায়েই ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি আস্ট্রাজেনেকা ও ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট এর উৎপাদন শুরু করেছে। আগস্টে চূড়ান্ত পরীক্ষায় উৎড়ে গেলে, সেপ্টেম্বরে হাতে আসবে এই ভ্যাকসিন।

এদিকে আগামী মাসে মানবদেহে পরীক্ষার শেষ ধাপ শুরু করতে যাচ্ছে মার্কিন বায়োটেক মডার্না। দুই হাজার একুশের শুরুতেই উৎপাদনে যেতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।

মানবদেহে করোনা প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেছে জার্মান বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি কিউরভ্যাকও। ইতিবাচক ফল এলে জানুয়ারিতেই বিপণন শুরু হবে প্রতিষেধক। জোর চেষ্টা চালাচ্ছে চীনা প্রতিষ্ঠান ক্লোভারও। প্রথম ধাপের পরিক্ষা সফল হলে, আগস্টে শুরু হবে দ্বিতীয় ধাপ।

এসব অগ্রগতিতেই আশাবাদী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সংস্থাটির প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সৌম্য স্বামীনাথন বলছেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়েলে কার্যকর প্রমাণ হচ্ছে কিছু ভ্যাকসিন। এসময় ম্যালেরিয়া চিকিৎসায় ব্যবহৃত হাইড্রোক্লোরোকুইন কভিড রোগীর মৃত্যু ঠেকাতে পারে না বলেও জানান তিনি।

করোনার ভ্যাকসিনের অপেক্ষায় রয়েছে পুরো বিশ্ব। নানা দেশের বিজ্ঞানীরা জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন প্রতীক্ষিত এই টিকা আবিষ্কারে। করোনার প্রমাণিত কোনো ঔষুধ না থাকায় ভ্যাকসিনেই মুক্তি খুঁজছে প্রায় সাড়ে সাতশো কোটি মানুষ।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বসত্ব ® দেশের সময়.কম কর্তৃক সংরক্ষিত।