মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আলামিয়া- নুরুল ইসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর আয়োজনে পবিত্র কছিদা বুরদা শরীফ খতমে খাজেগান, খতমে শেফা শরীফও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা যাবে না : হানিফ ইচ্ছে পূরন রক্তদান সংস্থা’র উদ্যােগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস মানবিক শহর গড়তে প্রয়োজন হাঁটা ও সাইকেলবান্ধব পরিবেশ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অনুষ্টিত হল বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ২০২০ “ দে‌বিদ্বার উপ‌জেলা স্টুডেন্টস অ্যা‌সো‌সি‌য়েশন অব তিতুমীর ক‌লেজ (ডুসা‌ট)’র ক‌মি‌টি ঘোষনা মুজিবের বাংলাদেশে মাওলানা আহমদ শফী দ্বীনের জন্য আমৃত্যু কাজ করেছেনঃ এনডিপি অসহনীয় লোডশেডিংয়ে ডেমড়ায় ভ্যাপসা গরমে অতিষ্ঠ জনজিবন শাহ আহমেদ শফি’র শেষ বিদায় জানাতে হাটহাজারীতে মানুষের ঢল
৭শ গোলের চূড়ায় ফুটবল বিস্ময় মেসি!

৭শ গোলের চূড়ায় ফুটবল বিস্ময় মেসি!

৭শ গোলের চূড়ায় ফুটবল বিস্ময় মেসি!

স্পোর্টস ডেস্ক ; ক্ষুদে জাদুকর, ফুটবল বিস্ময়, ভিন গ্রহের ফুটবলার, এলএমটেন, মেসি ম্যাজিসিয়ান। আপনার ভাণ্ডারে যতো উপমা দিয়েই বিশেষণ করেন না কেন, মনে হবে সব উপমাই যেন কমতি হয়ে পড়ছে আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি ক্ষেত্রে।

মেসি অসাধারণ, অবিশ্বাস্য এক নিখুঁত ফুটবলার। রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ডের জন্ম দেয়া এখন মেসির অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। এবারে হিমালয় সমান উচ্চতায় নিজেকে নিয়ে গেলেন আর্জেন্টিনার রোজারিওতে জন্ম নেয়া ফুটবলের এই মহানায়ক। ১৬ বছরের ফুটবল অধ্যায়ে নতুন এক গল্প রচনা করলেন তিনি। ৭০০ গোলের ক্লাবে নাম লিখেছেন লিওনেল আন্দ্রেস মেসি। এই রেকর্ড গড়তে মেসি খেলেছেন ৮৬২ ম্যাচ। মজার ব্যাপার হলো তার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ৭০০ গোলের ল্যান্ডমার্ক স্পর্শ করতে খেলেছিলেন তার চেয়ে ১১১টি বেশি ম্যাচ। অথাদ রোনালদো খেলেছিলেন ৯৭৩টি ম্যাচ। এখানেই তো এলএমটেন সবার থেকে আলাদা। সবার মতো তাই বলতেই হয় মেসি আসলেই ভিন গ্রহের।

প্রিয় ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে ৬৩০ আর জাতীয় দলের হয়ে ৭০টি মোট ৭০০ গোলের মালিক গোল মেশিন মেসি।

সবচেয়ে বেশি গোল করে সবার ওপরে জোসেফ বিকান (৮০৫ গোল) রোমারিও (৭৭২ গোল) পেলে (৭৬৭ গোল) পুসকাস (৭৪৬ গোল) গার্ড মুলার (৭৩৫ গোল) এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (৭২৮ গোল)

মেসি এক অনন্য। মেসি ফুটবল আকাশে জ্বলজ্বলে এক ধ্রুব তারা। যে তারায় আলোকিত ফুটবল বিশ্ব। এমন ফুটবলার বিশ্বর শুধু সম্পদই না, সারা দুনিয়ায় আগামীর প্রজন্মের প্রতিষ্ঠান। মেসি করোনার কালো ছায়ায় সূর্যের আলো হয়ে থাকুক হাজার বছর ধরে। আর পৃথিবীকে আনন্দের উপলক্ষ এনে দিক বারবার হাজাট কোটি বার।

কারণ ফুটবল রোমান্টিকরা চোখ বুঝলে আর চোখ খুললেই যেন দেখতে পায়। মাঝ মাঠ থেকে দুর্দান্ত দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে লিও, তাকে ঠেকাতে প্রতিপক্ষের ফুটবলরা ছুটছে তো ছুটছেই। কিন্তু মেসি তো ফুটবলের এক হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা, তার পেছনে এভাবেই তো ছুটবে সবাই। মেসি নামক হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা তার সুরের মূর্ছনায় মাতিয়ে রাখুক পৃথিবীকে একবার নয় হাজারো বার।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সর্বসত্ব ® দেশের সময়.কম কর্তৃক সংরক্ষিত।