মালিকদের স্বার্থে বাসভাড়া বাড়িয়ে সরকার অমানবিক কাজ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার সকালে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সস্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম এ অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দায়িত্বহীনতা এবং সমন্বয়হীনতার কারণে করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সরকার একেক সময়ে একেক তুঘলকি সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। পরিস্থিতি মোকবিলায় বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ আমলে নেওয়া হয়নি।

করোনা প্রাদুর্ভাবের এই সময়ে সাধারণ ছুটি বাতিল করে অফিস ও গণপরিবহন চালু করার সমালোচনা করে তিনি বলেন, এর ফলে করোনা সংক্রমণের হার আরো বাড়বে। লক ডাউন না করে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করায় জনগণ ঘরে থাকার সঠিক বার্তা পায়নি।

গণপরিবহন চালু করার পর ৬০ শতাংশ বাসভাড়া বাড়ানোর ফলে সাধারণ যাত্রীদের দুর্ভোগ বাড়বে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সকল বাস ও মিনিবাসের ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়। রোববার দুপুরে বাসভাড়া নিয়ে মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে হয়। সেখানে ভিডিও কলের মাধ্যমে যুক্ত হন সড়কপরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সেখানেই তিনি ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত অনুমোদন করেন তিনি।

এর আগে শনিবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ঢাকা ও সারা দেশে বাস–মিনিবাসের ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব তৈরি করে। এরপর এ নিয়ে সমালোচনা শুরু হলে রোববার সড়কমন্ত্রী ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি চূড়ান্ত করেন।